কলা খাওয়ার উপকারিতা | benefits of eating bananas| - banglaallnews

 কলা খাওয়ার উপকারিতা 2022 Eating bananas of Benefits:কিছু ডাক্তার মনে করেন খালি পেটে নাকি ফল খাওয়া উচিত নয়কিন্তু কলার ব্যাপারে এই উপদেশ টি মানলে যে ভুল করবেন তাতে কোন সন্দেহ নাইকারণ একাধিক গবেষণায় দেখা গেছে নানা পুষ্টি উপাদানে ঢাকা এই ফলটি প্রতিদিন সকালে একটি করে খেলে শরিরে অন্তরে এমন কিছু পরিবর্তন হতে শুরু করে, যে মন একে বারে সচল হয়ে উঠেসেই সাথে ক্যান্সারের মত মরণ রোগ দুর করতে সাহায্য করে এবং কিডনি সচল হয়সেই সাথে দৃষ্টি শক্তি বৃদ্ধি পায় এবং রক্তের সর্করা বৃদ্ধি করেতবে এখানেই শেষ নয় কলায় উপস্থিত প্রোটিন,ওমেগা সিক্স আরো নানা ভাবে শরিরের উপকারে লেগে থাকেবিস্তারিত থাকছে নিচে

 কলা খাওয়ার উপকারিতা

কলার উপকারিতা বিস্তারিত আলোচনা করা হলোা- 

 স্ট্রেস এবং মানসিক অবসাদের প্রকোপ কমেঃ

এক গবেষণায় দেখা গেছে প্রতিদিন খাবারে কলাকে জায়গা করে দিলে শরিরে ট্রাইফো টফিন নামক এক উপাদানের মাত্রা বৃদ্ধি পেতে সাহায্য করেযার প্রভাবে ফিল গুদ হরমনের প্রভাব এত পরিমাণ বেড়ে যায়,যে স্ট্রেস লেভেল তো কমে সেই সাথে মানসিক অবসাদের প্রকোপ কমতে সময় লাগেনা

 শরির বিষ মুক্ত হয়ঃ

শুনতে আজব লাগলেও একথা ঠিক যে শরিরের ক্ষতিকর টকসিন উপাদান গুলো বের করার মধ্য দিয়ে প্রত্যক অঙ্গ সচল রাখতে কলার কোন বিকল্প হয়না বল্লে চলেআসলে এই ফলটির মধ্যে উপস্থিত প্রেক্টিন নামক উপাদান শরিরে প্রবেশ করা মাত্র ক্ষতিকর উপাদানের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে থাকেফলে রোগ মুক্ত শরির পেতে সময় লাগেনা

ওজন নিয়ন্ত্রণ রাখেঃ

কলায় রয়েছে প্রচুর পরিমাণ ফাইভার যা অনেকক্ষণ পেট ভরিয়ে রাখে এবং কম ক্ষুধা লাগেফলে খাওয়ার পরিমাণ কমে যায়আর কম খেলে যে ওজন কমে এটা সবাই জানে

 পুষ্টির ঘাটতি দুর হয়ঃ

শরিরের সচলতা বজায় রাখতে প্রতিদিন নির্দিষ্ট মাত্রায় ভিটামিন এবং মিনারেল এর প্রয়োজন পড়ে শরিরেআর এই সব কিছুর উপাদান শরির পায় খাবারের মাধ্যমেবর্তমান যুগের প্রজন্ম এত ব্যস্ত যে খাবার খাওয়ার সময় পায়নাফলে শরিরে পুষ্টির ঘাটতি থেকেই যায় এবং বিভিন্ন রোগ এসে শরিরো বাশা বাধেতাই এবার থেকে খাবার খাওয়ার সময় না পেলে কলা খেতে ভুলবেননা যেন

 শরির সচল হয়ে উঠেঃ

বছরের শেষে অফিসে এমন কাজ যে ক্লান্তি ঘরির কাটার সাথে সাথে বাড়তে বাড়তে মাত্রা ছাড়িয়েছেএমন পরিস্থিতিতে একটা কলা খেয়ে নিবেন দেখবেন মন অনেক সচল হয়ে যাবে

 একজিমার প্রকোপ দুর হয়ঃ

বেশ কিছু গবেষণায় দেখা গেছে নিয়মিত একটা করে কলা খাওয়া শুরু করলে শরিরে এমন কিছু উপাদান ঘঠে যে শরিরে একজিমার প্রকোপ প্রায় ৩৪% কমে যায়তাই যারা একজিমা রোগ থেকে মুক্তি পেতে চান তারা নিয়মিত খাবারে একটি করে কলা রাখুন অনেক টা উপকার পাবেন

 ত্বকের সুন্দর্য বৃদ্ধি করেঃ

যদি কলার খোসা মুখে লাগাতে পারেনতাহলে একদিকে যেমন ত্বকের রোদের প্রকোপ কমে তেমনি ত্বকের সুন্দর্য বৃদ্ধি করেপ্রসঙ্গত কলার খোসাতে উপকারি এসিড ত্বকের সুন্দর্য বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে থাকে

সাস্থ সম্মত আরো নতুন নতুন টিপস পেতে আমাদের সাথে থাকুনপোষ্ট ভালো লাগলে অবশ্যই কমেন করে জানাতে ভুলবেন নাভালো থাকুন সুস্থ থাকুলআল্লাহ হাফেজ

Comments

Popular posts from this blog

পঞ্চম শ্রেণি আমাদের পরিবেশ - banglaallnews.com

৫ম শ্রেণির বিজ্ঞান ২য় অধ্যায় প্রশ্ন উত্তর

হলে সিটের জন্য আবেদন পত্র লেখার নিয়ম